পাচারকারীদের হাত থেকে রক্ষা পেল তানজিলা

118
নাজমুল ইসলাম শরণখোলা প্রতিনিধিঃ নিজ বুদ্ধিমত্তায় পাচারকারীদের হাত থেকে রক্ষা পেল শরণখোলা উপজেলার খোন্তাকাটা ইউনিয়নের রাজৈর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেনীর ছাএী তানজিলা আক্তার(১১)। তানজিলা ঐ ইউনিয়নের রাজৈর গ্রামের বেল্লাল সিকদার মেয়ে। ঘটনাটি ঘটে খোন্তাকাটা ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন এলাকায় স্কুলের টিফিনে বাড়ি ফেরার পথে একটি কালো মাইক্রোবাস এসে রাস্তার পাশে দাঁড়ায় ও জোর করে গাড়ীতে তুলে তানজিলার নাকে রুমাল ধরলে অজ্ঞান হয়ে পড়ে। জ্ঞান ফিরলে দেখতে পায় একটি ঘরে তালাবদ্ধ রয়েছে তানজিলা পাশে রয়েছে আর একটি মেয়ে নাকে রুমাল অজ্ঞান অবস্থায়। পাচারকারী সদস্যের কেউ স্থানে না থাকায় তানজিলা নিজ বুদ্ধিমত্তায় বিভিন্ন কৌশলে পাচারকারীর হাত থেকে রক্ষা পায়।
অপহরণের শিকার তানজিলা জানায়, সোমবার স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার পথে রাস্তার পাশে কালো রঙের  গাড়ি দাঁড়ায়। ঐ সময় দুই জন ধরে তাকে গাড়িতে তুলে ও নাকে রুমাল ধরলে সে অজ্ঞান হয়ে পড়ে। পরে জ্ঞান ফিরলে দেখতে পান একটি ঘরে তালাবদ্ধ তানজিলা। সেখানে একজন শিশু অজ্ঞান হয়ে পড়ে থাকতে দেখেছে।
একসময় পাচারকারী দলের সদস্য কেউ সেখানে নেই নিশ্চিত হয়ে তানজিলা ওই ঘরের জানালা ভেঙে বাগানের মধ্য দিয়ে মূল সড়কে উঠে একটি ভ্যানে করে বাড়িতে ফিরে আসে। ওই কক্ষে থাকা অপর শিশুটির ভাগ্যে কি হয়েছে, তা সে বলতে পারে না।
এদিকে, তানজিলার মা রিনা বেগম জানান, মেয়ের স্কুল থেকে টিফিনের সময় বাড়ি ফিরতে দেরী হওয়ায় তিনি বিচলিত হয়ে পড়েন। বিকাল পর্যন্ত কোন খবর না পেয়ে তিনি ভেঙ্গে পড়েছিলেন। সন্ধ্যার কিছু পূর্বে তানজিলা ফিরে আসায় পরিবারে মাঝে স্বস্তি ফিরে আসে। বাড়ি এসে সংশ্লিষ্ট খোন্তাকাটা ইউপি চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন খাঁন ও পরিবারের কাছে ঘটনার বর্ননা করে তানজিলা।
তানজিলা আরও বলেন,ঐ এলাকায় তাকে নিয়ে গেলে সে বাড়িটি চিনতে পারবে। আমড়াগাছিয়া গ্রামের ভ্যান চালক সালাম ফকির বলেন,বিকাল ৫টার দিকে শরণখোলা-মোরেলগঞ্জ মহাসড়কের গাজীর ব্রিজ এলাকায় স্কুলের ড্রেস পরা  ওই মেয়েটিকে কাঁদতে দেখে তিনি নিয়ে আসেন। শরণখোলা থানার অফিসার  ইনচার্জ দিলীপ কুমার সরকার বলেন,ঘটনাটি ঘটেছে সত্য। বিষয়টি আমি জেনেছি।এ ব্যাপারে দ্রুত খোঁজ খবর নেয়া হচ্ছে।