নতুন ল্যাপটপ কেনার পর করণীয় কি কি – জেনে নিন

ল্যাপটপ কেনার পর করণীয়

2

নতুন ল্যাপটপ কেনার পর করণীয় – নতুন ল্যাপটপ কেনার পর আমাদের অনেক প্রয়োজনী অনেক কিছু করনীয় থাকে। নতুন অবস্থায় ল্যাপটপ কেনার পর কি করনীয় তা আমরা অনেকেই জানি না। যার ফলে নতুন ল্যাপটপ কিনেও কিছু দিন পর বিভিন্ন সমস্যায় সম্মুখীন হতে হয়। ল্যাপটপ বর্তমান বাজারে একটি সহজলভ্য পণ্য। অনেকে অনেক কাজের জন্য ল্যাপটপ কিনে থাকে। কিন্তু অধিকাংশ মানুষই আসলে জানে না নতুন ল্যাপটপ কেনার পর করণীয় কি? এ জন্য ল্যাপটপ কেনার কিছু দিন পএরি কোন না কোন সমস্যা দেখা দেয় ল্যাপটপে। ল্যাপটপের সমস্যা নিয়ে হাজির হয় সার্ভিসিং এর দোকানে। অথচ নতুন ল্যাপটপ কেনার পর করণীয় সামান্য সেটিংস ঠিক করে নিলেই আমাদের সমস্যায় পড়তে হত না।

চলুন আজকে জেনে নেই নতুন ল্যাপটপ কেনার পর করণীয় কি কি কাজ করতে হয়।

নতুন ল্যাপটপ কেনার পর করণীয় কি কি

নতুন ল্যাপটপ কেনার পর আমাদের অনেক করণীয় থাকে। যে সব করলে ল্যাপটপ অনেক দিন যাবদ ভাল থাকে। ছোট খাটো কোন সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় না। চলুন শুরু করা যাক নতুন ল্যাপটপ কেনার পর করণীয় কি কি –

অপারেটিং সিস্টেম আপডেট । ল্যাপটপ কেনার পর করণীয়

বাজার থেকে নতুন ল্যাপটপ কেনার পর আপনার করণীয় হবে প্রথমে অপারেটিং সিস্টেম আপডেট করা। ল্যাপটপ উৎপাদনকারী কোম্পানী থেকে মার্কেটে আসার পর দীর্ঘ দিন ধরে পড়ে থাকে। এতে করে যে ভার্সনে ল্যাপটপ টি তৈরি করা হয় সেটি দুর্বল হয়ে পড়ে অথবা ব্যাকডেটেড হয়ে পড়ে। তাই নতুন ল্যাপটপ কেনার পর ইন্টারনেট সংযোগ দিয়ে অপেরাটিং সিস্টেম আপডেট করতে হবে। নতুন ল্যাপটপে আপডেট দেওয়ার ফলে আপনি লেটেস্ট ফিচার গুলোর এক্সেস পাবেন। এছাড়া অপারেটিং সিস্টেম আপডেট আপনার সিসটেমকে সুরক্ষিত রাখতে সাহায্য করবে।

ব্লোটওয়্যার রিমুভ । নতুন ল্যাপটপ কেনার পর করণীয়

নতুন ল্যাপটপ কেনার পর আপনার করণীয় গুলোর একটি হবে ব্লোটওয়্যার রিমুভ করা। ব্লোটওয়্যার হল অপ্রয়োজনীয় সফটওয়্যার যা অপারেটিং সিস্টেমে আগে থেকে ইন্সটল করা থাকে। এই সফটওয়্যার গুলো ল্যাপটপের ড্রাইভের জায়গা দখল করে রাখে এবং রিসোর্স নষ্ট করে। উইন্ডোজ ল্যাপটপে ব্লোটওয়্যার সমস্যা বেশি থাকে। ব্লোটওয়্যারের কারণে উইন্ডোজ ল্যাপটপে নানা রকম সমস্যা দেখা দেয়। যা ঠিক করার জন্য কিছু দিনের মধ্যেই সার্ভিস সেন্টারে যেতে হয়।

অন্যান্য অপারেটিং সিস্টেমে ব্লোটওয়্যার তেমন কোন সমস্যা করে না। যেমন, ম্যাক, লিনাক্স এবং ক্রোম ও.এস ল্যাপটপের ক্ষেত্রে ব্লোটওয়্যার তেমন কোন সমস্যা করে না।

অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যার ইনস্টল । নতুন ল্যাপটপ কেনার পর কি করবো

নতুন ল্যাপটপ কেনার পর করণীয় অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যার ইনস্টল করা। উইন্ডোজ ১০ এমনিতেই অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যার দিয়ে থাকে। তবুও অতিরিক্ত প্রতিরক্ষার জন্য অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যার ইনস্টল করে নিতে পারেন। ম্যাক আর লিনাক্স অতিরিক্ত ভাবে অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যার অফার করে না। তাই নতুন ল্যাপটপ কেনার পর এ ক্ষেত্রে ক্রোম থেকে অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যার ইনস্টল করে নিতে হবে। কয়েকটি অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যারের নাম হল – 1. Kaspersky Internet Security 2. Quick Heal Total Security 3. Guardian Internet Security by Quickheal 4. Quickheal Internet Security

এন্টি থিফ টুল কনফিগার । ল্যাপটপ কেনার পর যা করণীয়

নতুন ল্যাপটপ কেনার পর এন্টি থিফ টুল কনফিগার করতে হবে। কারণ কোন কারণে আপনার ল্যাপটপ হারিয়ে গেলে আপনার সমস্ত ডেটা হারিয়ে যাবে। ল্যাপটপে এন্টি থিপ টুল কনফিগার করা থাকলে আপনার হারিয়ে যাওয়া ল্যাপটপ ফেরত পাওয়া সম্ভব। ল্যাপটপ হারিয়ে যাওয়ার পর ফেরত পেতে হলে আপনাকে এন্টি থিফ টুল কনফিগার করতে হবে। উইন্ডোজ ১০ এ ফাইন্ড মাই ডিভাইস নামের অপশন রয়েছে। সেটা চালু করতে হবে।

নতুন ল্যাপটপ এ এই অপশন চালু করলে কখনো যদি আপনার ল্যাপটপ হারিয়ে যায় তাহলে সেটির লোকেশন ট্রেস করতে পারবেন। তবে সব থেকে ভাল উপায় হল আপনার ল্যাপটপ টিকে সাবধানে রাখবেন।

পাওয়ার সেভার অন করা । নতুন ল্যাপটপ কিনে যা করণীয়

নতুন ল্যাপটপ কেনার পর আপনাকে পাওয়ার সেভার অন করতে হবে। ল্যাপটপ কিনে পাওয়ার সেভার অন রাখলে ব্যাটারি অযথা চার্জ খাওয়া থেকে বিরত থাকবে। এছাড়া আপনি ল্যাপটপের ব্রাইটনেস কমিয়ে রাখতে পারেন। নতুন ল্যাপটপ কেনার পর আপনাকে পাওয়ার সেভার অন করে রাখতে হবে। এই কাজ করলে ল্যাপটপের ব্যাটারি ও ভাল থাকবে।

অটোমেটিক ব্যাকআপ কনফিগার করা

নতুন ল্যাপটপ কেনার পর আপনার করণীয় গুলোর মধ্যে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ কাজ হল অটোমেটিক ব্যাকআপ কনফিগার করা। কারণ আপনার ল্যাপটপ যত পুরোনো হবে তাতে তত বেশি ফাইল জমা হবে। আর কোন কারণে যদি আপনার ল্যাপটপ সার্ভিসিং করাতে হয় তাহলে যেন সব ফাইল চলে না যায়। আপনার দরকারি পুরনো ফাইল ফিরে পেতে চাইলে ল্যাপটপ কেনার পর অটোমেটিক ব্যাকআপ কনফিগার করতে হবে।

নতুন ল্যাপটপ কেনার পর উপরের এই সমস্ত করণীয় পালন করতে হবে। ল্যাপটপ কেনার পর করণীয় আপাতত শেষ হলেও আপনাকে আপনার ল্যাপটপ আপনার মত করে গুছিয়ে সাজাতে হবে। এখন সময় হল আপনি আপনার প্রিয় নতুন ল্যাপটপ টিকে কিভাবে সাজাবেন –

সিস্টেম কাস্টমাইজ করা । নতুন ল্যাপটপ কেনার পর করণীয়

নতুন ল্যাপটপ কেনার পর আপনার মনের মত করে সিস্টেম কাস্টমাইজ করতে হবে। আপনি আপনার ডেস্কটপে পছন্দ মত ছবি দিতে পারেন, থিম, লে আউট, টাস্কবার, ব্যাককভার এই সব আপনার মনের করে সাজাবেন।

পছন্দ মত অ্যাপস ইনস্টল । ল্যাপটপ কেনার পর করণীয়

নতুন ল্যাপটপ কেনার পর আপনার ল্যাপটপ এ আপনার প্রয়োজনীয় অ্যাপস, সফটওয়্যার ইনস্টল করতে হবে। আপনার ল্যাপটপ আপনার দরকারী সব অ্যাপস , সফটওয়্যার ইনস্টল করে নিবেন। যেন আপনি আপনার নতুন ল্যাপটপ দিয়ে আপনার কাজ বা পড়াশোনা ভালোভাবে চালিয়ে নিতে পারেন।

নতুন ল্যাপটপ কেনার পর করণীয় শেষ কথা

আশা করি উপরোক্ত তথ্যের মাধ্যমে পাঠকেরা উপকৃত হবেন। আপনারা এখন বুঝতে পারবেন নতুন ল্যাপটপ কেনার পর করণীয় কি কি। নতুন ল্যাপটপ কেনার পর উপরোক্ত করণীয় গুলো পালন করলে আপনার ল্যাপটপ অনেক দিন ভাল সার্ভিস দিবে। মোবাইল, ল্যাপটপ, কম্পিউটার অর্থাৎ টেক সম্পর্কে নতুন নতুন তথ্য পেতে নিয়মিত আমাদের সাইট ভিজিট করবেন। ধন্যবাদ

Leave A Reply

Your email address will not be published.