ওয়েব ডেভেলপার হওয়ার কমপ্লিট গাইডলাইন তোমার জন্য

ওয়েব ডেভেলপার হওয়ার গাইডলাইন

9

বর্তমানে অনেকেই বলে আমি একজন ওয়েব ডেভেলপার। আসলে ওয়েব ডেভেলপমেন্ট অনেক বড় একটা ব্যাপার। তারা সেটা বুঝতে পারে না। তারা বুঝতেও চেষ্টা করে না যে, কথাটা যত সোজা কাজটা ততটা সোজা না। অনেকে এখন ওয়ার্ডপ্রেস বা জুমলা ইন্সটল এবং কিছু প্লাগিন ও থিম সম্পর্কে ধারনা নিয়েই নিজেকে একজন ওয়েব ডেভেলপার হিসাবে দাবি করেন। তবে ব্যাপারটা মজাই লাগে। কিন্তু তারা জানে না একজন ওয়েব ডেভেলপার হওয়ার কমপ্লিট গাইডলাইন গুলো কি?একজন ওয়েব ডেভেলপার গাইড লাইন সম্পর্কে কি কি ধারণা থাকতে হয়। তা না জেনে অথচ নিজেকে দাবি করে আমি একজন ওয়েব ডেভেলপার। আর আপনি যদি হিসাব করেন বর্তমানে আমাদের দেশে কাক পাখির মত ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর সংখ্যা অগণিত। বন্ধুরা আমরা এখন কাজের কথায় আসি। আপনারা মনে করছেন আমি এক্সপার্ট সেটা না তবে ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর প্রাথমিক পর্যায় থেকে শুরু করে এক্সপার্ট লেভেল পর্যন্ত একটি ওয়েব ডেভেলপমেন্ট গাইডলাইন দেবার চেষ্টা করবো। তবে এক্সপার্টরা যদি কোন ভুল পান তাহলে জানাবেন।

একজন ওয়েব ডেভেলপার হওয়ার কমপ্লিট গাইডলাইন কি কি তা ধারাবাহিক ভাবে নিচে পয়েন্ট আকারে তুলে ধরা হলো। যেখান থেকে জ্ঞানার্জন করে আপনিও হতে পারেন ভালো মানের একজন ওয়েব ডেভেলপার।

ওয়েব ডেভেলপার হতে হলে এইচটিএমএল (HTML) জানতে হবে

মানব দেহের শরীর গঠনের জন্য যেমন হাড়ের গুরুত্ব বেশি ঠিক তেমনি ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য এইচটিএমএল এর গুরুত্ব অনেক বেশি। বলতে গেলে এটি একটি ওয়েবসাইটের গাঠনিক ভিত্তি। আপনি যেকোনো ওয়েবসাইট তৈরি করেন না কেন, শুরুতেই আপনাকে সেই ওয়েবসাইটে এইচটিএমএল নিয়ে কাজ করতে হবে।

এইচটিএমএল দ্বারা ওয়েবসাইটের মূল গঠনটি তৈরি করা হয়ে থাকে। অর্থাৎ ওয়েবসাইটের কোন অংশে কি থাকবে এবং কোন অংশ আগে থাকবে বা পরে থাকবে সেগুলোকে নির্ধারণ করার জন্য এইচটিএমএল গুরুত্বপূর্ণ। একজন ওয়েব ডেভেলপার হতে চাইলে অবশ্যই আপনার এইচটিএমএল সম্পর্কে ধারণা থাকতে হবে। আপনি Front End Developer অথবা Back End Developer যাই হতে চান না কেন এইচটিএমএল (HTML) নিয়ে আপনাকে কাজ করতেই হবে।

এইচটিএমএল শিখতে হলে অবশ্যই আপনার (HTML Tag List) সম্পর্কে ধারণা থাকতে হবে। অর্থাৎ কোনটির মাধ্যমে কি করা হয়ে থাকে সে সম্পর্কে ধারণা লাভ থাকতে হবে। তারপরে আপনাকে বিভিন্ন আকার আকৃতির ওয়েবসাইট সম্পর্কে ধারণা লাভ করতে হবে। সেগুলোকে তৈরি করার জন্য কোন লেআউট ব্যবহার করা হয় সেটা জানতে হবে এবং শিখতে হবে। এর জন্য হতে পারে আপনার জন্য সেরা একটি প্ল্যাটফর্ম w3school ওয়েব ডেভেলপমেন্ট গাইডলাইন , যেখানে আপনি খুব সহজেই HTML সম্পর্কিত বিভিন্ন তথ্য জানতে পারবেন এবং সেখান থেকে শিক্ষা নিতে পারবেন। এছাড়া এই ওয়েবসাইটে আপনি সাথে সাথে বিভিন্ন প্র্যাকটিস করার মত হোমওয়ার্ক পেয়ে যাবেন।

ওয়েব ডেভেলপার হতে হলে সিএসএস (CSS) জানতে হবে

সিএসএস হলো এক ধরনের বিউটি পার্লারের মত। যার কাজ হলো ওয়েবসাইট কে সাজ সজ্জা করা। এই ওয়েব ডেভেলপমেন্ট গাইডলাইন এ সিএসএস এর গুরুত্ব অনেক। কেননা, এই সিএসএস ওয়েবসাইট কে দেখতে সুন্দর ও ব্যবহার উপযোগী করে তোলে। এতে করে যে কোনো ইউজার খুব সহজেই বিভিন্ন বিষয়কে দেখে বুঝতে পারে এবং ইউজারকে আকর্ষণ করার জন্য এর গুরুত্ব অনেক বেশি। আর আপনি যদি একজন front-end ডেভেলপার হতে চান। তাহলে অবশ্যই আপনাকে সিএসএস সম্পর্কে সম্পূর্ণ স্পষ্ট ধারণা থাকতে হবে। এর ফলে আপনি খুব সহজেই অনেক সুন্দর সুন্দর ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারবেন। আর সিএসএস শিখার ক্ষেত্রে সব থেকে ইফেক্টিভ প্ল্যাটফর্ম হচ্ছে w3school।

এইচটিএমএল ও সিএসএস এ দক্ষতা অর্জনের পর HTML ও CSS

আপনি এইচটিএমএল এবং সিএসএস শেখার পরে কমপ্লিটলি একটি প্রজেক্ট তৈরি করতে পারবেন। এই দুই টি বিষয় না জানা ছাড়া আপনি কখনোই ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর কাজ করতে পারবেন না। তাই ওয়েব ডেভেলপার হতে গেলে আপনাকে এইচটিএমএল ও সিএসএস এ দক্ষতা অর্জন করতে হবে। তারপর আপনি যে কোন প্রযেক্টে কাজ করতে পারবেন।

উদাহরণ স্বরূপ, বিভিন্ন প্রজেক্ট গুলোর মধ্যে আপনি বর্তমানে যে প্রতিষ্ঠানে কর্মরত রয়েছেন অথবা পড়ালেখা করেছেন তার জন্য একটি ওয়েবসাইট তৈরি করুন। আর এর মাধ্যমে আপনি বিভিন্ন বিষয় সম্পর্কে ধারনা লাভ করতে পারবেন। আপনি শুরুতে এইচটিএমএল এবং সিএসএস শেখার পরে বড় কিছু শুরু করার আগে মনে রাখতে হবে অবশ্যই আপনাকে বেশ কিছু প্রজেক্ট সম্পন্ন করে তুলতে হবে। তারপরে সে সম্পর্কে ধারণা নিয়ে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে হবে।

আপনি যখন মোটামুটি ভাবে সিএসএস এবং এইচটিএমএল সম্পর্কে পূর্ণাঙ্গ ধারণা লাভ করবেন। তখন কিন্তু আপনি খুব সহজেই যে কোনো ওয়েবসাইটের ক্লোন অথবা প্রতিরূপ তৈরি করতে সক্ষম হবেন। সুতরাং আমার নিজের থেকে সার্জেষ্ট থাকবে আপনার প্রিয় বেশ কিছু ওয়েবসাইটকে নিজে আকৃতি দান করার চেষ্টা করুন। মনে করুন, আপনি গুগল সার্চ এর পেজটাকে এইচটিএমএল এবং সিএসএস দিয়ে কিভাবে তৈরি করা যায় সেটা project হিসাবে নিতে পারেন।

ওয়েব ডেভেলপার হওয়ার কমপ্লিট গাইডলাইন তোমার জন্য

ওয়েব ডেভেলপার হতে হলে সিএসএস ফ্রেমওয়ার্ক শিখতে হবে

সিএসএস হচ্ছে এক ধরনের ডিজাইন সিস্টেম। যার মাধ্যমে খুব সহজেই উন্নত মানের ডিজাইন তৈরী করা যায়। এছাড়া এমনও অনেক কাজ আছে যার জন্য আমাদের অনেক গুলো লাইন কোড লিখতে হতো। কিন্তু যদি আমরা ফ্রেমওয়াক ব্যবহার করি তাহলে আমাদের আর সে কাজ করতে হবে না। আর ডিজাইনের জন্য বিভিন্ন কোড আগে থেকেই লেখা হয়ে থাকে। আমরা চাইলেই সে গুলো খুব সহজেই নিদিষ্ট নাম দিয়ে আমাদের ডিজাইনে সংযুক্ত করতে পারি। এতে করে আমাদের যেমন করে সময় বেঁচে যাবে তেমনি ভাবে আমরা বিভিন্ন আইডিয়া নিয়ে খুব সহজেই বাস্তবতা দিতে পারবো।

বর্তমানে অনেক ধরনের ফ্রেমওয়ার্ক রয়েছে। তার মধ্যে Bootstrap, Tailwind CSS, Foundation, Milligram, Bulma, UIkit, Pure, Tachyons এই সময়ের জনপ্রিয় ফ্রেমওয়ার্ক। এর মধ্যে থেকে আপনি যে একটি ব্যবহার করতে পারেন। কিন্তু বর্তমানে Bootstrap এর ব্যবহার সব থেকে বেশি। অন্যান্য যত গুলো ফ্রেমওয়ার্ক রয়েছে তার মধ্যে তুলনা মূলক ভাবে Bootstrap এ কাজ শেখা সবচেয়ে সহজ এবং রিসোর্স অনেক বেশি। যার জন্য যে কোন বিগেনার খুব সহজেই এর থেকে দক্ষতে অর্জন করতে পারে। আপনি চাইলেই Bootstrap ব্যবহার করে যে কোন ডিজাইন তৈরী করতে পারেন। যা আপনার কাছে কোন ব্যাপারই না।

ওয়েব ডেভেলপার হতে হলে জাভাস্ক্রিপ্ট শিখতে হবে

জাভাস্ক্রিপ্ট একটি প্রোগ্রামিং ভাষা। যা একজন ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। যার মাধ্যমে একটি ওয়েবসাইটকে জীবণ দেওয়া হয়। আপনি বুঝতে পেয়েছেন কি না জানিনা। যদি বুঝে থাকেন তাহলে তো ভালো আর যদি না বুঝে থাকেন। তাহলে আপনি পূর্বের কথা চিন্তা করুন, আমরা শুরুতে এইচটিএমএল দিয়ে ওয়েবসাইটের একটি স্ট্রাকচার দাঁড় করেছি। তারপর সিএসএস দিয়ে সেটাকে সুন্দর করে সাজিয়ে নিয়েছি। এরপর জাভাস্ক্রিপ্ট দিয়ে ঐ ওয়েবসাইটে জীবন দান করেছি। এক কথায় জাভাস্ক্রিপ্ট এর কাজ ওয়েবসাইট কে সচল করা।

তাই আমি মনেকরি, জাভাস্ক্রিপ্ট এ দক্ষতা অর্জন করতে হলে, অবশ্যই আমাদের কে প্রোগ্রামিংয়ের খুঁটিনাটি বিষয় গুলো সম্পর্কে ধারণা লাভ করতে হবে। অর্থাৎ ভেরিয়েবল কি, ডেটা টাইপ কি, কিভাবে বিভিন্ন গাণিতিক সমস্যা সমাধান করা যায় প্রোগ্রামিং এর মাধ্যমে, এছাড়াও আরও অনেক খুঁটিনাটি বিষয় যেগুলো সম্পর্কে আমাদের পূণাঙ্গ ধারণা লাভ করতে হবে।

ওয়েব ডেভেলপার হতে হলে জাভাস্ক্রিপ্টের ফ্রেমওয়ার্ক শিখতে হবে

বর্তমানে জাভাস্ক্রিপ্টের অসংখ্য ফ্রেফওয়ার্ক দেখতে পাওয়া যায়। তার মধ্যে অন্যতম ফ্রেমওয়ার্ক গুলো হচ্ছে ReactJs, Angular, Vuejs, jquery ইত্যাদি। এগুলো ব্যবহার করা হয় মূলত ওয়েবসাইটের ফাংশনালিটি বৃদ্ধি করা এবং বিভিন্ন কৌশল দিয়ে ওয়েবসাইটকে পূর্বের তুলনায় উন্নত করা। তবে শুরুতে আপনাকে জাভাস্ক্রিপ্টের উপর দক্ষতা অর্জন করতে হবে। তারপর আপনি জাভাস্ক্রিপ্টের ফ্রেমওয়ার্ক শেখা শুরু করতে পারবেন। তা নাহলে আপনি কখনোই জাভাস্ক্রিপ্টের ফ্রেমওয়ার্ক সম্পর্কে দক্ষতা অর্জন করতে পারবেন না। তবে সব থেকে ভালো এবং জনপ্রিয় জাভাস্ক্রিপ্ট ফ্রেমওয়ার্ক হচ্ছে রিঅ্যাক্ট (ReactJs)এর ব্যবহার অসংখ্য ওয়েবসাইটে দেখা যাচ্ছে।

ওয়েব ডেভেলপার এর যে খুঁটিনাটি বিষয় গুলো জানতে হবে

ডেভ টুল ( Dev Tool) সম্পর্কে ধারণা

ওয়েব ডেভেলপার এর জন্য ডেভ টুল ( Dev Tool) অনেক সাহায্যকারী একটি টুল। এর দ্বারা আপনি বিভিন্ন error solve করতে পারবেন এবং সমস্যার সঠিক সমাধান খুঁজে বের করতে পারবেন। আপনার ব্রাউজারে রাইট বাটন ক্লিক করে ইনস্পেক্ট অপশনে গেলে আপনি মূলত এই অংশকে দেখতে পাবেন। এই টুল টির দ্বারা ডিজাইন এবং কোডের ভুল নির্ণয় করা অনেক সহজ হয় এবং বিভিন্ন স্ট্যান্ডার্ড অনুসরণ করার জন্য এর গুরুত্ব অপরিসীম।

GitHub ব্যবহার করা জানতে হবে

GitHub হচ্ছে একটি প্ল্যাটফর্ম। যেখানে আপনি আপনার কোড জমা রাখতে ও সংরক্ষন করতে পারবেন। এই GitHub এর মাধ্যমে আপনি আপনার কোড কে অন্যান্য ওয়েব ডেভেলপার এর সাথে শেয়ার করতে পারবেন। GitHub এর মাধ্যমে আপনি বিভিন্ন প্রজেক্টকে অন্যদের সামনে তুলে ধরতে পারবেন এবং চাকরির আবেদন করার জন্য এর গুরুত্ব অপরিসীম।

আমরা এই GitHub এর মাধ্যমে আমাদের বিভিন্ন প্রজেক্ট একজন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের সামনে উপস্থাপন করতে পারি এবং জানাতে পারি আমাদের দক্ষতা কতটা এবং আমরা কি ধরনের কাজ করতে পারি। এ জন্য শুরু থেকেই আপনি আপনার প্রযেক্টের কোড গুলো সংরক্ষন করার চেষ্টা করবেন। এতে করে কোন সমস্যায় পড়লে পুনরায় আপনি আপনার কোড গুলো থেকে ধারণা নিতে পারবেন। আর যারা নতুন রয়েছে তারাও আপনার কোড থেকে উপকৃত হবে। তাই আমি মনেকরি, একজন  ওয়েব ডেভেলপার কমপ্লিট গাইডলাইন জানা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আর ওয়েব ডেভেলপার হওয়ার কমপ্লিট গাইডলাইন না জানা ছাড়া কেউ সঠিক ডেভেলপার হতে পারবে না।

বন্ধুরা, ওয়েব ডেভেলপার হওয়ার কমপ্লিট গাইডলাইন সম্পর্কে উপরোক্ত সকল পদ্ধতি এবং ধাপগুলো অনুসরণ করার মাধ্যমে আপনি একজন ওয়েব ডেভেলপার হয়ে উঠতে পারবেন। এই ক্ষেত্রে আপনাকে হতে হবে অবশ্যই কঠোর পরিশ্রমী এবং উন্নত মানসিকতার। আর বিশ্বাস রাখতে হবে নিজেদের উপর। প্রকৃতপক্ষে সময় এবং আত্মবিশ্বাসই আমাদেরকে সফল হতে সাহায্য করবে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.